সর্বশেষ সংবাদ
September 20, 2019 - মরণোত্তর দেহ বা অঙ্গ দানে সংস্কারের বেড়াজাল
September 20, 2019 - বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশগুলোর মোকাবেলা করছে ইয়েমেন
September 20, 2019 - জলবায়ুর পরিবর্তন ঠেকাতে ঢাকার রাজপথেও শিশুরা
September 20, 2019 - অভিযোগ থাকলে আমাকেও ধরুন: যুবলীগ চেয়ারম্যান
September 20, 2019 - জাতিসংঘের অধিবেশনে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের পথে প্রধানমন্ত্রী
September 20, 2019 - সচিবালয়-র‌্যাব হেড কোয়ার্টারসহ ১৭ প্রকল্প জি কে শামীমের হাতে
September 20, 2019 - কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি ফিরোজসহ আটক ৫, অস্ত্র ও ইয়াবা জব্দ
September 20, 2019 - মাদক ও অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে : তথ্যমন্ত্রী
September 19, 2019 - ‘রোহিঙ্গারা বাংলাদেশি’, ক্যামেরনকে সুচি
September 19, 2019 - মার্কিন নেতৃত্বাধীন টহল বাহিনীতে যোগ দেবে না ইরাক

হংকং বিক্ষোভ নিয়ে ‘অপপ্রচার’, ২১০ ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ

হংকং আন্দোলন নিয়ে সমন্বিতভাবে ‘অপপ্রচার’ ছড়ানোর অভিযোগে ২১০টি ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ আসল পরিচয় আড়াল করতে ভিপিএন ও অন্যান্য পদ্ধতি ব্যবহার করে ওই অ্যাকাউন্টগুলো চালানো হচ্ছিল৷

default

ইউটিউব বলছে, হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের আন্দলনের বিরুদ্ধে একটি মোর্চা গঠনে কাজ করছিল এমন ইউিটউব চ্যানেলগুলো নিস্ক্রিয় করে দেয়া হয়েছে৷

গুগলের সিকউরিটি থ্রেট এনালাইসিস গ্রুপের শেন হান্টলি এক অনলাইন বার্তায় বলেছেন, হংকংয়ের চলমান বিক্ষোভ নিয়ে সমন্বিতভাবে একই ধরনের ভিডিও আপলোড করায় ২১০টি ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ আমরা দেখেছি এসব অ্যাকাউন্ট তাদের উৎপত্তিস্থল আড়াল করতে ভিপিএন এবং অন্যান্য পদ্ধতি ব্যবহার করেছে৷

হংকংয়ের বিক্ষোভ দমাতে চীন সরকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছে এমন অভিযোগ তুলে সম্প্রতি তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয় টুইটার ও ফেসবুক৷ একই ধরনের অভিযোগে ইউিটিউব ২১০টি চ্যানেল বন্ধ করে দিলেএ এজন্য সরাসরি চীনকে সরকারকে দায়ী করেনি৷

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভুল তথ্য ছাড়ানো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই সমালোচনা হচ্ছে৷

১৯৯৭ সালে ব্রিটিশদের থেকে চীনের কাছে হস্তান্তরের পর হংকংয়ের ইতিহাসে গত কয়েক মাসের এ প্রতিবাদকেই সবচেয়ে বড় বলা হচ্ছে৷

চীনের কাছে হস্তান্তরের সময় যুক্তরাজ্য শহরটির স্বায়ত্তশাসন ও স্বাধীনতা এবং স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা অটুট রাখার প্রতিশ্রুতি আদায় করে নিয়েছিল৷ হংকংয়ের কারণেই চীনকে ‘এক দেশ, দুই ব্যবস্থাপনার’ নীতিতে চলতে হচ্ছে৷

এসআই

Please follow and like us:
error

About author

Related Articles

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

Enjoy this blog? Please spread the word :)