সর্বশেষ সংবাদ
October 15, 2019 - মেক্সিকোয় সৌরশক্তির ব্যবহার বাড়াতে অভিনব উদ্যোগ
October 15, 2019 - আঞ্চলিক উত্তেজনার মাঝে সৌদি সফরে পুতিন; ২০ চুক্তি সই
October 15, 2019 - শেখ হাসিনাকে দৃশ্যপট থেকে সরিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী
October 15, 2019 - লিজিং কোম্পানিগুলোর দুরবস্থা, ব‌্যবস্থা নিচ্ছে বাংলাদেশ ব‌্যাংক
October 15, 2019 - ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন ডিসেম্বরে, বিতরণ জানুয়ারিতে
October 15, 2019 - মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশেও লড়াই করছেন জেসিয়া!
October 15, 2019 - ৯৩,৮০০ কোটি টাকার আরও দু’টি মেট্রোরেল প্রকল্প একনেকে অনুমোদন
October 14, 2019 - দুদক চেয়ারম্যান ব্যর্থ হয়েছেন: ফজলে নূর তাপস
October 14, 2019 - কতটা কঠিন বিমানবালাদের কাজ
October 14, 2019 - কুর্দিদের সঙ্গে চুক্তির পর ৩ শহরে ঢুকে পড়েছে সিরিয়ার সেনারা

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ভয়ংকর সিরিয়াল কিলারঃ ৯৩ জনকে খুন করেছেন স্যামুয়েল লিটল

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দী এক সাজাপ্রাপ্ত খুনি এ পর্যন্ত ৯৩টি খুনের কথা স্বীকার করার পর এফবিআই তাকে দেশটির ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ংকর সিরিয়াল খুনি বলে নিশ্চিত করেছে।

স্যামুয়েল লিটল নামের ৭৯ বছর বয়সী এই ব্যক্তিকে পুলিশ অন্তত ৫০টি খুনের ঘটনায় জড়িত বলে দেখতে পেয়েছে। এসব খুনের ঘটনা ঘটেছে ১৯৭০ সাল হতে ২০০৫ সালের মধ্যে।

তিন মহিলাকে খুনের দায়ে ২০১২ সাল হতে তিনি কারাগারে সাজা খাটছেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, স্যামুয়েল লিটল হামলার জন্য বেছে নিতেন দুর্বল প্রকৃতির লোকদের, বিশেষ করে মেয়েদের। এদের বেশিরভাগই হয় যৌনকর্মী অথবা মাদকাসক্ত।

যুক্তরাষ্ট্রের যেসব জায়গায় খুনের কথা স্বীকারে করেছেন স্যামুয়েল লিটল
Image captionযুক্তরাষ্ট্রের যেসব জায়গায় খুনের কথা স্বীকারে করেছেন স্যামুয়েল লিটল

স্যামুয়েল লিটল ছিলেন একজন পেশাদার বক্সার। তিনি প্রথমে ঘুষি মেরে কাউকে কাবু করতেন। এরপর শ্বাসরোধ করে হত্যা করতেন। এর ফলে তাদেরকে যে খুন করা হয়েছে,সেটা প্রথম দেখায় বোঝা যেত না।

এরকম অনেক খুনের ঘটনা এফবিআই কখনো তদন্ত করেই দেখেনি। অনেক হত্যার ঘটনাকে দুর্ঘটনা বা অতিরিক্ত মাদক নেয়ার ফল বলে খারিজ করে দেয়া হয়েছিল। অনেক মৃতদেহ তো খুঁজেই পাওয়া যায়নি।

সোমবার এক বিবৃতিতে এফবিআই জানিয়েছে, স্যামুয়েল লিটল যেসব খুনের কথা স্বীকার করেছেন, সেগুলো বিশ্বাসযোগ্য বলেই মনে হচ্ছে।

এফবিআই এর একজন বিশ্লেষক ক্রিস্টি পালাজ্জো বলেন, “অনেক বছর ধরে স্যামুয়েলের ধারণা ছিল সে কখনো ধরা পড়বে না। কারণ তার খুনের শিকার যারা হচ্ছিল, তাদের খবর কেউ রাখছিল না।”

তিনি বলেন, যদিও স্যামুয়েল জেল খাটছেন, তারপরও এই প্রত্যেকটি খুনের ঘটনাতেই তার বিচার করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

২০১২ সালে কেনটাকিতে একটি মাদকের মামলায় স্যামুয়েল লিটলকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর তাকে ক্যালিফোর্নিয়ার পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। তার বিরুদ্ধে আগে থেকেই সশস্ত্র ডাকাতি থেকে শুরু করে ধর্ষণ – এরকম বহু ধরণের অপরাধের অভিযোগ ছিল।

পরে ডিএনএ পরীক্ষায় তাকে তিনটি খুনের সঙ্গে সম্পর্কিত দেখা যায়। লস এঞ্জেলেসে ১৯৮৭ হতে ১৯৮৯ সাল এসব খুনের ঘটনা ঘটে।

Please follow and like us:
error

About author

Related Articles

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

Enjoy this blog? Please spread the word :)